ফ্রিল্যান্সিং শিখবেন না অন্য কিছু ?

[X]

আমার প্ল্যান একটা সিরিজ টিউটোরিয়াল করব পি.এইচ.পি নিয়ে। তবে আমি অভিজ্ঞ কেউ না। যতটুকু পারি বা আমি যেসব সমস্যা পেস করছি তা থেকেই শেয়ার করব। তার আগে আজ কিছু অভিজ্ঞতা শেয়ার করি।

আমার কম্পিউটার এর সাথে প্রথম পরিচয় হয় 2007 সালে একটা কম্পিউটার ট্রেনিং এ ভর্তি হওয়ার মধ্যে দিয়ে। এরপর থেকেই কম্পিউটার আমার ধ্যান জ্ঞান। এর পর মোবাইলে ইন্টারনেট ঘাটতে ঘাটতে টেকটিউনস এর সাথে পরিচয়। তারপর থেকে এখানেও রেগুলার। কিন্তু লেখালেখিতে মারত্বক অনিহার কারনেই কখনো নিজে কিছু লিখি নাই। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে আমিও তো আরেকজনের লেখালেখির অভ্যাসের কারনেই অনেক কিছু জানতে পারছি। তাই আমারও তো কিছু লেখার দরকার নতুন কাউকে কিছু জানানোর দরকার, তাই আজ সাহস করে বসে গেলাম। এবার মূল বিষয়ে আসি।

বিগত কয়েক বছর থেকেই বাংলাদেশের সবথেকে আলোচিত শব্দ ফ্রিল্যান্সিং। সবাই শুধু এটা শিখে ঘরে বসেই কোন কিছু না করেই মাস শেষে লক্ষ লক্ষ টাকার ইনকাম করে আপনিও শিখেন। এইধরনের বিজ্ঞাপন দেখে অন্য সবার মতো আমিও হুমড়ি খেয়ে পড়ি এবং শেষে সবকিছু ছেড়ে দিয়ে বিদেশ যাওয়ার ধান্দা শুরু করি। আমি হয়ত অন্য সবার মতো ট্যালেন্ট না হওয়াতে আমার এই অবস্থা। কিন্তু আমি দেখি পরিচিত অনেকেরই এই অবস্থা। এখন আপনি বলেন আপনিও কি আমার মতো শিখবেন নাকি ? আপনাদের যেন আমার মত মুখ থুবড়ে পড়তে না হয় সে জন্যই কিছু অভিজ্ঞতা শেয়ার করব। তার আগে জেনে নিই ফ্রিল্যান্সিং কি এবং কারা শিখবেন।

ফ্রিল্যান্সিং কিঃ

একেবারে সহজ কথায় ফ্রিল্যান্সিং হল কারো সাথে দীর্ঘমেয়াদি চুক্তিবদ্ধ না হয়ে যে কোন একটা প্রজেক্টের জন্য স্বল্পমেয়াদি চুক্তিবদ্ধ হয়ে তাকে টাকার বিনিময়ে কোন সেবা দেওয়। এখন আসেন কি ধরনের সেবা দিবেন। সেবার রকম যে কোন কিছু হতে পারে। আপনারা যারা পত্রিকা পড়েন সেখানে মাঝে মাঝেই দেখবেন অমুক ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক এই নিউজ টা করেছে। অর্থাৎ ঐ সাংবাদিক এই পত্রিকার কেউ না সে শুধু মাত্র এই নিউজ টা ঐ পত্রিকার কাছে বিক্রি করেছে। এখন আপনার কাছে আমার প্রশ্ন সে কি ফ্রিল্যান্সিং শিখছে নাকি সাংবাদিকতা ? আশা করি ব্যাপারটা পরিষ্কার হয়েছেন। আপনি যদি ফ্রিল্যান্সার হতে চান তবে আপনাকে ফ্রিল্যান্সং শিখতে হবে নাকি কোন বিষয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে ? তাই যারা ফ্রিল্যান্সার হতে চান আগে কোন বিষয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করেন।

 

কিছু সাধারন প্রশ্নের উত্তর

 

১। এটা শিখতে কত দিন লাগবে ?

উঃ আপনাকে আমি একটা প্রশ্ন করি ধরেন আপনি খুব ভালো গনিত পারেন। এখন আমি যদি আপনাকে বলি ভাইয়া এটা শিখতে কত দিন লাগবে। এর উত্তর কি আপনার কাছে আছে ? তাই এটা নির্ভর করবে আপনি কেমন আগ্রহ নিয়ে শিখছেন তার উপর। আমি আজ প্রায় দু বছর প্রোগ্রামিং শিখছি কিন্তু আমার এখনো মনে হয় অনেক কিছু শিখতে হবে। তারপর সেবা বিক্রি করব মানে ফ্রিল্যান্সিং করব।

২।এটা শিখে আমি কত টাকা ইনকাম করতে পারব ?

উঃ আরেকটা উদাহরন দিই। আপনারা সবাই তো কমবেশি হোটেল এ খাওয়া দাওয়া করেন এবং ওয়েটার কে বকশিশ দেন। কিন্তু একটু লক্ষ করে দেখবেন তো সব ওয়েটার কে কি সমান বকশিশ দেন? যদি আমার মত হয়ে থাকেন তাহলে বলব দেন না। যার সেবা বেশি ভালো লাগে তাকে অন্যদের থেকে বেশি দেন। তাই এই প্রশ্নের উত্তর ডিপেন্ড করবে আপনি কেমন সেবা দিচ্ছেন এবং কি সেবা বিক্রি করছেন। একজন ওয়েটার আর একজন এডভোকেট এর ইনকাম এক রকম না। এডভোকেটরাও কিন্তু সহজ কথায় ফ্রিল্যান্সার তার আপনাকে সেবা দিয়ে তার বিনিময়ে টাকা নিচ্ছে। যদিও উনারা এটাকে আইন পেশা বলতেই সাচ্ছন্দ বোধ করে।

৩। সবাই অনেক টাকা ইনকাম করছে তাই আমিও শিখে টাকা ইনকাম করি কি বলেন?

উঃ এর উত্তর হচ্ছে সবাই তো ডাক্তার হয়েও অনেক টাকা ইনকাম করছে। এক কাজ করেন আপনিও ডাক্তার হয়ে যান। হয়ত ছোটবেলায় স্বপ্ন দেখছেন পারেন নাই। নিজেকে প্রশ্ন করে দেখেন কেন পারেন নাই ? আপনার পড়ালেখাতে আপনার যেসব বন্ধু ডাক্তার তাদের মত আগ্রহ ছিল না তাই পারেন নাই। আপনার মেধা কম এটা আমি বলব না। তাই যদি টাকার পিছনে না ঘুরে যে কাজে আগ্রহ পান তার পিছনে ঘুরেন। আপনার কাজে যদি সৃজনশীলতা থাকে টাকা নিয়ে মানুষ বসে থাকবে আপনি সময় দিতে পারবেন না।

আরো কিছু প্রশ্ন আছে তার উত্তার পুরো লেখাটা পড়েলে নিজেই বুজতে পারবেন। আমি 2012 সালে ওডেস্ক এ একাউন্ট খুলি তারপর কিছুদিন ডাটা এন্ট্রি ও সামনে যা পাই তাই দিয়ে কাজ করতে চেষ্টা করে মোটামুটি বেশ কিছু টাকা ইনকাম ও করে ফেলি। ঐ সময় কিছুই পারতাম না একমাত্র অফিস আর ফটোসপ এর টুকটাক কিছু কাজ ছাড়া। একসময় নিজের ভুল বুঝতে পারি যে এখানে এভাবে টিকে থাকা যাবে না। তারপর ওয়েব ডিজাইন শিখেতে শুরু করি এবং ওডেস্ক এ কাজ করা বন্ধ করে দিই। সেখানে কাজ করতে গিয়ে মনে হল আমার প্রোগ্রামিং শিখতে হবে। তারপর শুরু করি প্রোগ্রামিং শিখা। সবকিছুই অনলাইন থেকে। কিন্তু কিছু দূর শিখে আগ্রহ হারাই কিছুদিন দূরে থাকি এরপর আবার একসময় মনে হলো প্রোগ্রামিং আমাকে টানছে। তখন থেকেই আবার পি এইচ পি শিখা শুরু করি। এরপর থেকেই এখন পর্যন্ত শুধু এটা নিয়েই আছি। কিন্তু এখনো মনে হয় পি এইচ পির কিছুই শিখা হলো না কিছু বেসিকে এখনো দূর্বলতা আছে। কিন্তু বেসিক নিয়ে এখন কাজ করতে ভালো লাগে না। এখন শুধু ইচ্ছা করে ওয়েব এপ্লিকেশেন বানাই। যখন যে কোন ছোট একটা ওয়েব এপ্লিকেশন বানাতে পারি সেটার মজা আর কোন কিছুর সাথে তুলনা হয় না। কিন্তু বেসিকেরও তো সমস্যা দূর করতে হবে। তাই চিন্তা করলাম কিছু আর্টিকেল লিখি। আর আর্টিকেল লিখার জন্য অনেক কিছু পড়াশুনা করতে হবে তাই শুরু করলাম।

সবশেষে একটা কথা বলব আপনার ফ্রিল্যান্সার হতে হবে এমন কোন কথা নাই। আপনার যে সেক্টরে ভালো লাগে সে সেক্টর নিয়ে কার করেন। আর যারা নতুন করে পি এইচ পি শিখতে চাচ্ছেন তাদের সাথে দেখা হবে।

টিউন করেছেন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *